৫১ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাল ইউরোপের যে তিন দেশ

ইউরোপ
  © ফাইল ছবি

কেউ উন্নত জীবনের আশায় কাজ করতে আবার কেউ উচ্চশিক্ষা নিতে বাংলাদেশ থেকে পাড়ি জমিয়েছিলেন ইউরোপের দেশ সাইপ্রাস, গ্রিস ও ফ্রান্সে। কিন্তু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় তাদের ৫১ জনকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার সকালে সাইপ্রাস এন০৫০৯১ (নর্স এয়ার) এর একটি বিশেষ ফ্লাইটে তারা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌছান। জি টু জি প্রোগ্রামের আওতায় তারা দেশে ফিরেছেন। 

আরও পড়ুন: যুক্তরাজ্যের রেক্সহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুন আইইএলটিএস ছাড়াই

ফেরত আসাদের মধ্যে রয়েছেন সাইপ্রাস থেকে ১৬ জন, গ্রিস থেকে ১৪ এবং ফ্রান্স থেকে ২১ জন। আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) পক্ষ থেকে তাদের ৫০ ইউরো (৬০০০ টাকা) দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। এর আগে গত ১৮ জানুয়ারি আইওএম’র সহযোগিতায় লিবিয়া থেকে দেশে ফিরেছেন পাচারের শিকার ১৩১ বাংলাদেশি।  আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। 

এপিবিএন’র পুলিশ সুপার (মানবপাচার সেল) একেএম আক্তারুজ্জামান বলেন, মানবপাচার ঠেকাতে এপিবিএন’র নবগঠিত টিআইপি সেল এবং বিমানবন্দর ইউনিট সম্মিলিতভাবে তাদের গ্রহণ করে। ফেরত আসাদের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী আইনি সহায়তা দেওয়া হবে। 

এপিবিএন সূত্র বলছে, সাইপ্রাস থেকে ফেরত আসাদের বেশিরভাগই শিক্ষার্থী। তারা জানিয়েছেন, কাগজপত্র ঠিক মতো ম্যানেজ করতে না পারায় ফেরত আসতে বাধ্য হয়েছেন তারা। এ ছাড়া ফ্রান্স ও গ্রিস থেকে ফেরত আসারা জানিয়েছেন, তারা দীর্ঘ দিন ধরেই সেখানে ছিলেন। কিছু কাগজের ঘাটতি ছিল তাদের। ফলে জোর করেই সে দেশের সরকার তাদের ফেরত পাঠিয়েছে।


মন্তব্য