বাংলাদেশিদের জন্য ভারতযাত্রা আরও সহজ হবে

বাংলাদেশ-ভারত
  © ফাইল ছবি

প্রতিবছর প্রচুর মানুষ প্রতিবেশি রাষ্ট্র ভারতে যাতায়াত করেন। তবে ভিসা জটিলতা ও যাতায়াত ব্যবস্থার স্বল্পতার কারণে  বাংলাদেশিদের জন্য ভারতযাত্রা আরও সহজ করতে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী ফারুক খান।

আজ মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) পর্যটনমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা। এ সময় দুই দেশের আন্তঃযোগাযোগ উন্নয়নে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে বলে বৈঠক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন পর্যটনমন্ত্রী।

ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মার সঙ্গে পর্যটনমন্ত্রী ফারুক খান (ছবি সংগৃহীত)

মন্ত্রী জানান, ভবিষ্যতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম ছাড়াও দেশের আরও বেশকিছু জেলায় ভারতের ফ্লাইট চলাচল করবে। বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে এখন প্রতিদিন ২০০ এর উপরে ফ্লাইট চলাচল করে। এ সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে। বৈঠকে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধিতে বেশকিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এগুলোর মধ্যে আছে, ট্যুরিস্ট বাড়াতে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে ট্যুরিজম ফেয়ার করা, বাংলাদেশের জন্য ভারতে অনারারি ভিসা সহজ করা, হেলথ ভিসাসহ অন্যান্য ভিসার সংখ্যা বাড়ানো ইত্যাদি।

ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা জানিয়েছেন, ভারতে বাংলাদেশিদের অন অ্যারাইভাল ভিসা নিয়ে আলোচনা করা হবে। এ প্রসঙ্গে ফারুক খান বলেছেন, শুধু ভারত নয়, পর্যটনের সঙ্গে সম্পর্কিত সব দেশের সঙ্গেই অন এ্যারাইভাল ভিসা নিয়ে আলোচনা করা হবে। সামনের সপ্তাহে এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

এরপর বাংলাদেশ বিমানের বর্তমান অবস্থা নিয়ে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বিমানের বিভিন্ন সমস্যা আছে। বিমানের অব্যবস্থাপনার যেসব অভিযোগ আছে সেগুলো নিয়ে কাজ করছে মন্ত্রণালয়। এগুলো কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। তবে, বিমান এখন লাভেই চলছে বলে মনে করি। যদিও একে অ্যামিরাটসের সাথে তুলনা করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, দুর্নীতির যেসব অভিযোগ আছে তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবাসীদের জন্য ইমিগ্রেশনে আলাদা কাউন্টার করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


মন্তব্য