২০ বছরের পুরাতন বাসের তালিকা তৈরির নির্দেশ

বাস
  © ফাইল ছবি

গত কয়েকমাস ধরেই প্রায়ই বিশ্বে বায়ূ দূষণে শীর্ষে উঠে আসছে ঢাকা। এবার রাজধানীর বায়ূ দূষণ রোধে ২০ বছরের পুরাতন বাসের তালিকা তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিবেশমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী। আগামী ৮ এপ্রিলের মধ্যে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) এ তালিকা তৈরি করে পরিবেশ মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে বলেও জানান তিনি।

আজ রবিবার (৩১ মার্চ) বায়ুদূষণ রোধ সংক্রান্ত পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। 

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, ‘বায়ুদূষণ রোধে ঢাকা শহরে চলাচলকারী ইকোনমিক লাইফ অতিক্রান্ত ২০ বছরের অধিক বয়সী বাস প্রত্যাহার করতে হবে। এলক্ষ্যে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ৮ এপ্রিলের মধ্যে ঢাকা শহরে চলাচলকারী উক্ত বয়সী বাসের তালিকা প্রেরণ করবে। পরিবহন মালিক সমিতি ২০ এপ্রিলের মধ্যে ২০ বছরের অধিক বয়সী বাস প্রত্যাহারের পরিকল্পনা প্রদান করবে। বৃহত্তর জাতীয় স্বার্থে কোনও আপোষ করা হবে না।’ 

সম্প্রতি বায়ুদূষণ নিয়ে ওয়ার্ল্ড এয়ার কোয়ালিটি রিপোর্ট-২০২৩ শীর্ষক এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আইকিউএয়ার। এতে দেখা যায়, ২০২৩ সালে বায়ুদূষণে শীর্ষ দেশ বাংলাদেশ। আর বায়ুদূষণের শীর্ষে থাকা শহরের তালিকায় ঢাকার অবস্থান দ্বিতীয়। 

সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘সরকারি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে দূষণ নিয়ন্ত্রণের বাজেট বরাদ্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণ কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নে ব্যয় করতে হবে। তিতাস গ্যাস, বিদ্যুৎ বিভাগ, ওয়াশা, সিটি কর্পোরেশন সমন্বয় করে রাস্তার খননকার্য সংশ্লিষ্ট উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনকে সালফার সহ ডিজেল আমদানি বন্ধ করতে হবে।’ 

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘উন্মুক্তভাবে যাতে বর্জ্য পোড়ানো না হয় সিটি কর্পোরেশন সে বিষয়ে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। রাজউক, সিটি কর্পোরেশন, পুলিশ বিভাগ নির্মাণকালে নির্মাণ সামগ্রী ঢেকে রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করবে। পুরাতন যানবাহন পুরোপুরি নিয়ম মেনে স্ক্র্যাপ করতে হবে।রাজউকের পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ সংশ্লিষ্ট শর্ত মেনে চলতে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট নির্মাণ কার্যক্রমের অনুমতি বাতিল করতে হবে।’ 


মন্তব্য