রাজধানীতে দফায় দফায় শিলাবৃষ্টি

শিলা
  © বাংলাদেশ মোমেন্টস

দীর্ঘ এক প্রায় এক মাস তীব্র তাপপ্রবাহের পর রাজধানীতে দফায় দফায় শুরু হয়েছে শিলাবৃষ্টি। সেইসঙ্গে শুরু হয়েছে ভয়াবহ বজ্রপাত ও বিদ্যুতের চমক।

আজ রবিবার (৫ মে) রাত সাড়ে দশটার দিকে রাজধানীর কাঁটাবন, নিউমার্কেট, আজিমপুর, যাত্রাবাড়িসহ আরও বিভিন্ন জায়গায় প্রথম দফায় শিলাবৃষ্টি ও বজ্রপাত হয়েছে। 

এ সময় ব্যাপক বজ্রপাতে মানুষকে আতঙ্কিত অবস্থায় ছোটাছুটি করতে দেখা যায়। আবার অনেককেই নিরাপদ স্থানে দাঁড়িয়ে শিলা কুড়াতেও দেখা গেছে।

এরপর বৃষ্টি না থামলেও শিলা পড়া থেমে যায়। তবে রাত ১১টা ২০ মিনিটের দিকে আবারও শুরু হয়েছে শিলাবৃষ্টি। এবার আরও ভয়ঙ্কর রূপ নেয় এই শিলাবৃষ্টি। টিনের চাল যেনো ভেঙে যাওয়ার মতো অবস্থা, এমন একটা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

মাতুয়াইল থেকে মনোয়ার হোসেন নামের এক বাসিন্দা বাংলাদেশ মোমেন্টসকে বলেন, অনেক ঝড় হচ্ছে, বৃষ্টির ছটা গায়ে লাগতেসে। ঠান্ডা বাতাস। বৃষ্টি দেখতেসি আর গান গাইতেসি।

তিনি আরও বলেন, তীব্র গরমে অফিসে করে অতিষ্ট হয়ে গিয়েছিলাম। আজ একটু সস্তি বোধ করছি।

এর আগে দেশের ৮ বিভাগের ওপর দিয়ে বিচ্ছিন্নভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছিলো  আবহাওয়া অধিদপ্তর। 

রবিবার (৫ মে) বিকেল ৪টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার (৩ দিন) জন্য এই সতর্কবার্তা দেয়া হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানিয়েছেন, এই সময়ের মধ্যে রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে বিচ্ছিন্নভাবে পশ্চিম/উত্তরপশ্চিম দিক থেকে দমকা ঝোড়ো হাওয়াসহ কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে কালবৈশাখী ঝড়ের সঙ্গে বজ্রপাত ও বিচ্ছিন্নভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে, রোববার সন্ধ্যার মধ্যে সিলেটে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আজ দুপুর ১টা ২০ মিনিট থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরের জন্য দেয়া আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, এই সময়ের মধ্যে সিলেট অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে, আবহাওয়া অধিদপ্তরের ৭২ ঘণ্টার সর্বশেষ পূর্বাভাসে আগামী তিন দিন দেশের বেশকিছু অঞ্চলে বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে রোববার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এই সময়ের মধ্যে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, বর্তমানে ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় তা কিছু কিছু জায়গা থেকে প্রশমিত হতে পারে। পাশাপাশি এই সময়ে রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে। এছাড়া অন্যত্র তা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

এদিকে, সোমবার (৬ মে) সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। আর এই সময়ে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় ১-৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। পাশাপাশি এই সময়ে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। এছাড়া বর্ধিত ৫ দিনে সারাদেশে বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে বলেও পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।


মন্তব্য