সর্বনিম্ন বেতন ৩০ হাজার করার দাবি সরকারি কর্মচারীদের

বেতন
  © সংগৃহীত

বেতন বাড়ানোর দাবিতে কয়েক দফায় আন্দোলন করেছিলো পোশাক শ্রমিকরা। এই আন্দোলনে কয়েকজনের মৃত্যুও হয়েছে। পোশাক শ্রমিকদের আন্দোলনের ভিত্তিতে অবশেষে বেতন বাড়িয়ে ১২ হাজার ৫০০ টাকা নির্ধারণ করে দেয় সরকার। এবার সর্বনিম্ন ৩০ হাজার টাকা বেতনের দাবি জানিয়েছেন সরকারি কর্মচারীরা। 

আজ শনিবার (১১ মে) রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে আলাদা সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানান বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী কল্যাণ ফেডারেশন ও বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী সমিতির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আকতার হোসেন ৬ দফা দাবি জানিয়ে বলেন, নবম জাতীয় পে-স্কেল ঘোষণা ও সর্বনিম্ন বেতন-ভাতা ৩০ হাজার টাকা করতে হবে। একইসঙ্গে আউট সোর্সিং প্রথা বাতিল করে সচিবালয়ের মতো এক ও অভিন্ন নিয়োগ বিধি প্রণয়ন করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগর নির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ আবুল বাশার। লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ খলিলুর রহমান ভূঞা। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি মো. মহসিন ভূইয়া, মো. সালাহ উদ্দিন আহম্মেদ, আনোয়ার হোসেন চৌধুরী, ঢাকা মহানগর নির্বাহী পরিষদের সভাপতি মো. বাহার উদ্দিন, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নজির আহমেদ ভূইয়া প্রমুখ। 

এদিকে বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতি নবম পে-স্কেল ও আউটসোর্সিং প্রথা বাতিলসহ ১০ দফা দাবি জানিয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন সংগঠনের সভাপতি মো. আজিম। এ সময় সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. মোক্তার হোসেন, মহাসচিব মো. নিজাম উদ্দিন পাটওয়ারী, উপদেষ্টা আব্দুল মান্নান, কার্যকরী সভাপতি মো. সেলিম ভূঁইয়াসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।  


মন্তব্য