শনিবার সোয়া ২ কোটি শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস

জাতীয়
  © সংগৃৃহীত

সারা দেশে ৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সি প্রায় সোয়া দুই কোটি (২ কোটি ২২ লাখ) শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে শনিবার। ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ২৭ লাখ শিশুকে একটি নীল রংয়ের এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সি প্রায় ১ কোটি ৯৫ লাখ শিশুকে লাল রংয়ের একটি ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল বিনামূল্যে খাওয়ানো হবে। 

দিনব্যাপী এ কার্যক্রমে সারা দেশে ৪০ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী ও দুই লাখ ৪০ হাজার স্বেচ্ছাসেবী নিয়োজিত থাকবে। এদিন ৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সি সুস্থ শিশুর অভিভাবকদের নিকটস্থ কেন্দ্রে থাকার আহবান জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর স্বাস্থ্য অধিদফতরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন জুন-২০২৪ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশিদ আলম এ কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সারা দেশে প্রায় এক লাখ ২০ হাজার কেন্দ্রে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কথা কিন্তু এবার ঘূর্ণিঝড় রিমালের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় উপকূলীয় এলাকার প্রায় এক হাজার ২২৪ কেন্দ্রে নির্দিষ্ট সময়ে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে না। পুনর্বাসন সমস্যা সমাধান হলে সেখানে পরবর্তী খুব দ্রুত সময়ে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশিদ আলম বলেন, জুনের ১ থেকে আমাদের সারা দেশে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো শুরু হবে। উপকূলের যেসব এলাকায় বন্যা আক্রান্ত হয়েছে সেখানে অবস্থা ভালো হলে তাদের এ ক্যাপসুল দ্রুতই খাওয়ানো হবে।

ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলের উপকারিতা প্রসঙ্গে মহাপরিচালক বলেন, ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খেলে অন্ধত্ব প্রতিরোধ হয়, শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি নিশ্চিত করে, সব ধরনের মৃত্যুর হার ২৪ শতাংশ হ্রাস করে। এছাড়া হাম, ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ার কারণে মৃত্যু উল্লেখযোগ্য হারে কমায়।

ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে শনিবার ঢাকা জেলার ১টি পৌরসভা ও ৫টি উপজেলায় (ধামরাই, কেরানীগঞ্জ, নওয়াবগঞ্জ, দোহার, সাভার ও সাভার পৌরসভা) শিশুদের ভিটামিন এ প্লাস খাওয়াবে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়। এ দিন ৫ লাখ ৩৩ হাজার ৪৫২ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা সিভিল সার্জন ডা. বিপ্লব কান্তি বিশ্বাস।

সংবাদ সম্মেলনে সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. নূরেন মোবাশ্বিরা প্রভার সঞ্চালানায় উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা বিভাগীয় জেলা তথ্য অফিসের (পরিচালক) কাজী গোলাম আহাদ, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. সরকার ফাহানা কবির, মেডিকেল অফিসার ডা. রেজওয়ানা পারভীন ডা. ওমর ফারুক, সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা শাজালাল মোহন ও জেলা স্বাস্থ্য সুপারিনটেনডেন্ট মো. আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে ভিটামিন এ প্লাস ক্যপসুল ক্যাম্পেইন কার্যক্রমের সার্বিক বিষয় তুলে ধরেন সিভিল সার্জন কার্যারয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. নূরুন মোবাশ্বিরা। তিনি বলেন, শনিবার ১৯৮ টি ওয়ার্ডে ১ হাজার ৭৪৩টি টিকা কেন্দ্রে আসা শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।

এদিকে টিকাদান সম্পর্কিত জনবল সংকট নিরসনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ফজলে শামসুল কবির। ডিএসসিসির প্রধান কার্যালয় নগর ভবনে ডিএসসিসিতে সম্প্রসারিত টিকাদান কার্যক্রমের চ্যালেঞ্জ এবং তা থেকে উত্তরণের উপায় বিষয়ক গবেষণার ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ার ক্ষেত্রে শিশুদের ভরাপেটে কেন্দ্রে নিয়ে আসার পরামর্শ দেওয়া হয়। এছাড়া কাঁচি দিয়ে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলের মুখ কেটে এর ভেতরে থাকা সবটুকু তরল ওষুধ চিপে খাওয়ানো ও জোর করে বা কান্নারত অবস্থায় ‘এ’ ক্যাপসুল না খাওয়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়।


মন্তব্য