থাকতেন ফুটপাতে, কুলির কাজ করে যেভাবে উত্থান আবেদ আলীর

প্রশ্ন ফাঁস
  © সংগৃৃহীত

বিসিএসসহ ৩০টি নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের তথ্য সামনে আসার পর আলোচনায় এসেছেন পিএসসির চেয়ারম্যানের সাবেক গাড়িচালক সৈয়দ আবেদ আলী জীবন। এরপরই বেরিয়ে এসেছে তাঁর বিপুল সম্পদের তথ্য। প্রশ্ন উঠেছে কীভাবে এত অর্থ-বিত্তের মালিক হলেন একজন ড্রাইভার।

কর্মজীবনের শুরুতে নিজের সংগ্রামের কথা নিজেই বলেছেন আবেদ আলী। নিজের ফেসবুক পেইজে একটি ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা যায়, ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় ঢাকায় চলে আসেন। ঢাকায় এসে ফুটপাতে থাকতেন তিনি। সেখানে করতেন কুলির কাজ। রিকশা চালানো, হোটেলে কাজ থেকে শুরু করে চালের ব্যবসা যে কাজ পেয়েছেন সেটাই করেছেন তিনি।  

এরপর ড্রাইভিং শিখে চাকরি পান সরকারি কর্ম কমিশনে। চালাতেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যানের গাড়ি। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি আবেদ আলীকে। প্রশ্নফাঁস ও বিভিন্ন অফিসে দালালি করে বিপুল অর্থের মালিক বনে যান তিনি। 

দুর্নীতির তথ্য সামনে আসার পর বেরিয়ে আসছে তাঁর বিপুল সম্পদের তথ্য। ঢাকায় দুইটি বহুতল ভবন, গ্রামে আলিশান বাড়ি, বিলাসববহুল গাড়ি, কুয়াকাটায় তিন তারকা হোটেলসহ নানা সম্পদ। এলাকায় বিঘার পর বিঘা সম্পদ কিনছেন বলেও জানা গেছে। 

স্থানীয় মিন্টু সরদার বলেন, ‘আবেদ আমার কাছ থেকে ২৬ শতাংশ জমি কিনেছেন। প্রায় এক বছর আগে আমি তার কাছে এই জমি বিক্রি করেছি।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, আবেদ আলী গ্রামে বহু ফসলি জমি কিনেছেন। নিজের নামে, স্ত্রী, সন্তান ও শ্বশুর-শাশুড়ির নামেও কিনেছেন। তদন্ত করলেই বেরিয়ে আসবে। 


মন্তব্য