ফোবর্সের শতকোটিপতির তালিকায় জায়গা পেলেন বাংলাদেশি আজিজ খান

ফোর্বস
  © ফাইল ছবি

সম্প্রতি বিশ্বের শতকোটি ধনীর তালিকা প্রকাশ করেছে মার্কিন ম্যাগাজিন ফোবর্স। তবে বিশ্বের ইউক্রেন যুদ্ধ, গাজা যুদ্ধ, হুথিদের লোহিত সাগরে হামলাসহ বিশ্বের এই বৈরী অবস্থাতেই শতকোটি টাকার ধনীর সংখ্যা আরও বেড়েছে। ২০২৪ সালে বিশ্বে শতকোটিপতিদের সংখ্যা ২ হাজার ৭৮১ জন, যা গত বছরের তুলনায় ১৪১ জন বেশি। বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের দখলে রয়েছে ১৪.২ ট্রিলিয়ন (১ লাখ কোটি) মার্কিন ডলার মূল্যের সম্পদ।

প্রখ্যাত বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) এ তালিকা প্রকাশ করে। সেই তালিকায় স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশের সামিট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আজিজ খান।

ফোর্বসের ওই তালিকায় স্থান পাওয়ার বিষয়ে ম্যাগাজিনটিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে জন্ম হওয়া সামিট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আজিজ খান বেড়ে উঠেছেন সিঙ্গাপুরে। মোহাম্মদ আজিজ খানের সামিট গ্রুপের পাওয়ার প্ল্যান্টের ব্যবসা, বন্দর কেন্দ্রিক ব্যবসা, ক্যাবল ব্যবসা (ফাইবার ক্যাবল) এবং আবাসন ব্যবসা রয়েছে।

ফোর্বসের ২০২৪ সালের শতকোটিপতির তালিকায় ২৫৪৫তম স্থানে রয়েছেন ৬৯ বছর বয়সী মোহাম্মদ আজিজ খান। তাঁর সম্পদের পরিমাণ ১১০ কোটি মার্কিন ডলার।

ফোর্বস ম্যাগাজিন বলছে, ২০১৯ সালে আজিজ খান সামিট পাওয়ারের ২২ শতাংশ শেয়ার জাপানের একটি কোম্পানির কাছে ৩৩ কোটি মার্কিন ডলারে বিক্রি করেন। এর মাধ্যমে তাঁর কোম্পানির মূলধন দাঁড়ায় ১৫০ কোটি মার্কিন ডলারে। বর্তমানে তাঁর মেয়ে আয়েশা সামিট পাওয়ার ইন্টারন্যাশনালের পরিচালনায় রয়েছেন।

বর্তমানে সিঙ্গাপুরে বসবাস করা মোহাম্মদ আজিজ খান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন। তাঁর তিন সন্তান রয়েছে।

ফোর্বসের ২০২৪ সালের শতকোটিপতিদের তালিকার প্রথমেই আছেন ফরাসি ধনকুবের বার্নার্ড আর্নল্ট ও তার পরিবার। ৭৫ বছর বয়সী আর্নল্ট ও তার পরিবার ২৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মালিক। ফ্যাশন-দুনিয়ার আলোচিত আর্নল্ট লুই ভিটন, সেফোরাসহ ৭৫টি ফ্যাশন ও প্রসাধনী ব্র্যান্ডের মালিক। 

গত বছরের শেষ দিকে শীর্ষ ধনীর তালিকায় প্রথমে ছিলেন এক্স, টেসলা, স্পেসএক্সসহ বিভিন্ন প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠানের মালিক ইলন মাস্ক। এ বছরের জানুয়ারিতে ইলন মাস্ককে পেছনে ফেলে বিশ্বের শীর্ষ ধনী হন আর্নল্ট। ফোর্বসের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইলন মাস্কের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৯৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শীর্ষ তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছেন ৬০ বছর বয়সী অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ১৯৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। 

তালিকায় চতুর্থ স্থানে আছেন ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপের মূল প্রতিষ্ঠান মেটার মালিক ৩৯ বছর বয়সী মার্ক জাকারবার্গ। তাঁর মোট সম্পদের পরিমাণ ১৭৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। 

তালিকায় পঞ্চম স্থানে আছেন ওরাকলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি এলিসন। ৭৯ বছর বয়সী ল্যারি এলিসনের মোট সম্পদের পরিমাণ ১৪১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

ফোর্বসের তালিকায় মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস আছেন সপ্তম স্থানে। তার মোট সম্পদের মূল্য ১২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। 

তালিকার অষ্টম স্থানে আছেন মাইক্রোসফটেরই সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্টিভ বলমার। ২০০০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত মাইক্রোসফটকে নেতৃত্ব দেওয়া ৬৮ বছর বয়সী স্টিভ বালমারের সম্পদের পরিমাণ ১২১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। 

তালিকার ১০ নম্বরে আছেন গুগলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ। ৫১ বছর বয়সী ল্যারি পেজের মোট সম্পদের পরিমাণ ১১৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তালিকায় ১১তম স্থানে আছেন গুগলের আরেক সহপ্রতিষ্ঠাতা সের্গেই ব্রিন। ৫০ বছর বয়সী ব্রিনের আছে ১১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সম্পদ। 


মন্তব্য