ডাক্তার পরিচয়ে ৩ বছর প্রেম; বিয়ের আসরে ধরা খেলেন দুধ ব্যবসায়ী

বিয়ে
  © প্রতীকী ছবি

ডাক্তার পরিচয়ে বিয়ে করতে এসেছিলেন এক দুধ ব্যবসায়ী। কিন্তু বিয়ের ঠিক আগ মুহুর্তেই বাঁধে বিপত্তি। নার্সিংয়ে পড়ুয়া এক মেয়ের সঙ্গে ৩ বছর ধরে প্রেম করে আসছিলেন এক দুধ ব্যবসায়ী। সব কিছু ঠিকঠাকই চলছিল। তাঁদের বিয়েও ঠিক হয়ে গিয়েছিল। তবে বিপত্তি বাধে বিয়ের আসরে, বিয়ের ঠিক আগ মুহূর্তে। নিজের এক আত্মীয়ের কথায় ধরা খেয়ে যান ওই দুধ ব্যবসায়ী। এমন ঘটনাই ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, অভিযুক্ত বরের নাম বাপি চাঁদপাড়ি। তিনি মুর্শিদাবাদ জেলার খড়গ্রামের বাসিন্দা। বছর তিনেক আগে স্যোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে বাঁকুড়ার জয়পুর ব্লকের বাঁকাটি গ্রামের ওই তরুণীর সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। তরুণী নদিয়ার কল্যাণীতে নার্সিং ট্রেনিং নিচ্ছেন। বাপি প্রেমের শুরুতে নিজেকে ডাক্তার বলে পরিচয় দেন। তরুণী সম্পর্কের কথা বাড়িতে জানালে বিয়েতে রাজি হয়ে যায় পরিবার। তবে তাঁরা কেউই বাপির বাড়িতে যাননি। বিয়ের দিন বরযাত্রী নিয়ে হাজির হন বর। বাপির পরিকল্পনা অনুযায়ী সব কিছুই ঠিক চলছিল। তবে তাঁর সঙ্গে আসা এক আত্মীয় জানান, তিনি ডাক্তার নন, দুধ ব্যবসায়ী। এ কথা শুনেই বিয়ে বন্ধ করে দেন পাত্রীর বাবা।

এ ঘটনায় বিয়ে বাড়িতে শোরগোল পড়ে যায়। বরকে আটকে রাখা হয়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে বরকে রেখে পালিয়ে যায় বরযাত্রীরা। এরপর থানায় খবর দেওয়া হলে অভিযোগের ভিত্তিতে বাপিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার বাপিকে মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তিন দিনের পুলিশ হেফাজতে নির্দেশ দিয়েছেন।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ