ভারতের দার্জিলিং বেড়াতে গিয়ে বাংলাদেশি পর্যটকের মৃত্যু

দার্জিলিং
  © ফাইল ছবি

ভারতের নান্দনিক শহর দার্জিলিংয়ে বেড়াতে গিয়ে বাংলাদেশি এক পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে। ৬৫ বছর বয়সী ওই পর্যটকের নাম এস কে আজিজুল হক বলে জানা গেছে।

স্থানীয় কার্শিয়াং হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে। আজিজুল বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা। ঢাকার মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা ছিলেন তিনি।

আজিজুল হকের সহযাত্রী মো. ফজলুর রহমান জানান, সহযাত্রী হিসেবে ট্রেনেই তাদের পরিচয় হয়। নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে নামার পর থেকেই অসুস্থ বোধ করছিলেন আজিজুল হক। মাঝে পরিবারকে ফোন করেও অসুস্থতার কথা জানিয়েছিলেন। এরপর তিনি ওই অবস্থাতেই শেয়ার গাড়িতে দার্জিলিংয়ের উদ্দেশে রওনা দেন। রাস্তায় খাওয়া-দাওয়াও করেন। এর কিছুক্ষণ পরেই চলন্ত গাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পরে তাকে হাসপাতালে নিলে মৃত বলে ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

দার্জিলিং জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আজিজুল হক একাই দার্জিলিং বেড়াতে গিয়েছিলেন। বুধবার (১৫ মে) সকালে মিতালী এক্সপ্রেসে পশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি রেলস্টেশনে যান তিনি। সেখান থেকে তিনি এক বাংলাদেশি সহযাত্রীর সঙ্গে শেয়ারে দার্জিলিং যাচ্ছিলেন। কার্শিয়াংয়ের রোহিনীর কাছে গাড়ির মধ্যেই হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক এ কর্মকর্তা। এরপর দ্রুত তাকে স্থানীয় কার্শিয়াং হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছানোর পর পরীক্ষা করে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে বাংলাদেশি পর্যটক মৃত্যুর এ ঘটনায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু হয়েছে কার্শিয়াং থানায়। ইতোমধ্যে নিহতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে সেখানকার পুলিশ। পরিবারের সদস্যরা পৌঁছালে মরদেহের ময়নাতদন্ত হবে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷ এরপর নিয়মমাফিক দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেবে পুলিশ৷


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ