ফোর্বসের এশিয়া ‘থার্টি আন্ডার থার্টি’তে ৯ বাংলাদেশি

ফোর্বস
  © সংগৃহীত

মার্কিন সাময়িকী ফোর্বসের থার্টি আন্ডার থার্টি এশিয়ার নবম সংস্করণ ঘোষণা করেছে। আজ বৃহস্পতিবার এ সংস্করণটি প্রকাশিত হয়। এই তালিকায় ৩০ বছরের কম বয়সী ৩০০ তরুণ উদ্যোক্তা, নেতা ও উদ্ভাবককে তুলে ধরা হয়েছে, যারা এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল জুড়ে পরিবর্তন আনছেন এবং উদ্ভাবন করে যাচ্ছেন।

৩০ বছর বয়সের আগে ব্যবসা-বাণিজ্যে বিশেষ অবদানের জন্য থার্টি আন্ডার থার্টি তালিকাটি প্রণয়ন করে আসছে ফোর্বস। ২০১১ সাল থেকে সাময়িকীটি এ তালিকা প্রকাশ করে। গেল কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশি তরুণেরা ধারাবাহিকভাবে এ তালিকায় স্থান করে নিচ্ছেন।

শিল্পকলা বিভাগে স্থান পেয়েছেন আনুশা আলমগীর। আনুশা অনলাইন থ্রিফ্ট স্টোর কালার্স ঢাকার প্রতিষ্ঠাতা। তার ‘পর্দা’ চলচ্চিত্রটি মুসলিমদের পর্দাশীলতার প্রথার ওপর ভিত্তি করে তৈরি এবং এটি বেশ আলোচিত হয়।

কনজ্যুমার টেকনোলজি ক্যাটাগরিতে স্বীকৃতি পেয়েছেন হ্যালোটাস্কের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মেহেদী স্মরণ। ‘উবার ফর মেইড সার্ভিস’ হ্যালোটাস্ক প্রতি ঘণ্টায় বুকিং, মাসিক সাবস্ক্রিপশন, তাদের নিয়োগ করা গৃহকর্মীদের যাচাইকরণ এবং শোষণ বা সহিংসতা থেকে রক্ষা করার জন্য সুরক্ষা বৈশিষ্ট্য সরবরাহ করে।

মিডিয়া, মার্কেটিং ও অ্যাডভার্টাইজিং ক্যাটাগরিতে তালিকাভুক্ত হয়েছেন রেদোয়ান আহমেদ। তিনি একজন পুরস্কার বিজয়ী ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক। এএফপির জন্য রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে তার কভারেজ তাকে ২২তম হিউম্যান রাইটস প্রেস অ্যাওয়ার্ড এনে দেয় এবং ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের জন্য তার অনুসন্ধান বাংলাদেশি পোশাক কারখানার শ্রমিকদের শোষণের বিষয়টি উন্মোচন করে। রেদোয়ান আহমেদকে ২০২১ সালের রেহাম আল-ফাররা মেমোরিয়াল জার্নালিজম প্রোগ্রামে ফেলো মনোনীত করা হয়েছিল।

ফিন্যান্স অ্যান্ড ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন 'জাতিক' এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা সুলতান মনি ও মুমতাহিনা আনিকা। সুলতান মনি ও মমতাহিনা আনিকা ঢাকাভিত্তিক ফিনটেক স্টার্টআপ জাটিকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন, যার লক্ষ্য ছোট কোম্পানিগুলোকে সহজে গ্রহণ করা যায় এমন সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যারের মাধ্যমে অ্যাকাউন্টিং আরও ভালভাবে পরিচালনা করতে সহায়তা করা। আগস্টে, জাটিক ডেকো ইশো ভেনচার ক্যাপিটালের নেতৃত্বে ১৬ লাখ ডলার তহবিল সংগ্রহ করে।

ফাইন্যান্স অ্যান্ড ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ক্যাটাগরিতে সম্মাননা পেয়েছেন ফাহাদ আহমেদ। ফাহাদ Wind.App এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা। এটি একটি ক্রস-বর্ডার রেমিট্যান্স প্ল্যাটফর্ম যা দ্রুত এবং সস্তা লেনদেনের জন্য ব্লকচেইন প্রযুক্তি এবং স্টেবলকয়েন ব্যবহার করে। ২০২২ সালে প্রতিষ্ঠিত স্টার্টআপটি নভেম্বরে গ্লোবাল ফাউন্ডার্স ক্যাপিটাল এবং স্পার্টান গ্রুপের নেতৃত্বে প্রাক-বীজ তহবিলে ৩.৮ মিলিয়ন ডলার সুরক্ষিত করেছে।

ফাইন্যান্স অ্যান্ড ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ক্যাটাগরিতে স্থান পেয়েছেন শহীদুল ইসলাম, আবদুল গাফফার সাদী ও মো. তুষার। মো. শহীদুল ইসলাম এবং মো. তুষার ঢাকাভিত্তিক ড্রুটোলোন প্রতিষ্ঠা করেন, যা ইংরেজিতে দ্রুত ঋণ প্রদান করে। সংস্থাটি ক্ষুদ্র ও ক্ষুদ্র ব্যবসাগুলিকে ব্যাংক এবং অর্থায়নকারী সংস্থাগুলি থেকে ঋণ পেতে সহায়তা করে, তাদের কাগজপত্রে সহায়তা করে এবং ঋণদাতাদের ঋণযোগ্যতা মূল্যায়ন করতে সহায়তা করে। ২০১৯ সালে শুরু করার পর থেকে, কোফাউন্ডাররা বলেছিলেন যে সংস্থাটি ২ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি ঋণ বিতরণ করেছে। নভেম্বরে এটি প্রাক-বীজ তহবিলে ১ লাখ ২৫ হাজার ডলার সংগ্রহ করেছে।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ