মার্কিন উড়োজাহাজ কোম্পানি বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে মামলার সুপারিশ

বোয়িং
  © ফাইল ছবি

সম্প্রতি ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে পড়েছে মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়। বোয়িংয়ের উড়োজাহাজে যান্ত্রিক ত্রুটি ওঠে  এবার প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করতে আমেরিকার বিচার বিভাগের (ডিওজে) কাছে সুপারিশ করেছে রাষ্ট্রীয় আইনজীবীরা। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অভিযোগ ২০১৮ ও ২০১৯ সালে দুটি ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহত ৩৪৬ যাত্রীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়ে তারা চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। 

এ ঘটনায় বক্তব্য জানতে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি বোয়িং কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা কোনো জবাব দেয়নি। অবশ্য আগে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা এ অভিযোগ অস্বীকার করেছিল সংস্থাটি। 

বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে আইনী প্রক্রিয়া শুরুর বিষয়ে আগামী ৭ জুলাইয়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে হবে ডিওজেকে। এ বিষয়ে বিভাগটির কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 

মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিবিএস বলছে, সুপারিশটি চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নয়। বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে কি ধরনের অভিযোগ আনা হচ্ছে তাও স্পষ্ট নয়। 

ফাউন্ডেশন ফর অ্যাভিয়েশন সেফটি নামের একটি সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ইড পিয়ারসন বলেন, ‘অত্যন্ত জটিল একটি সিদ্ধান্ত আসতে যাচ্ছে। এই উড়োজাহাজগুলোতে সমস্যা আছে।’ 
 
৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের উড়োজাহাজ দুটি ৬ মাসের ব্যবধানে বিধ্বস্ত হয়। ২০১৮ সালের অক্টোবরে প্রথমে ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ারের একটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয় আর দ্বিতীয়টি ছিল ইথিওপিয়ান এয়ারলাইনসের। এটি বিধ্বস্ত হয় ২০১৯ সালের মার্চে।  

বোয়িংয়কে ২৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা করার দাবি নিয়ে গত সপ্তাহে দুই দুর্ঘটনায় নিহতদের স্বজনেরা আইনজীবিদের কাছে আসেন। একই সঙ্গে সংস্থটির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা পরিচালনার দাবিও জানানো হয়।  

২০২১ সালের একটি চুক্তি চূড়ান্ত করার সময় বোয়িং জানিয়েছিল, তারা ক্ষতিপূরণ হিসেবে ২ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার দেবে। সে সময় আইনজীবীরা আদালতের কাছে অনুরোধ করেছিলেন, চুক্তির কিছু নির্দিষ্ট শর্ত মেনে চললে যাতে বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে ওঠা ফৌজদারি অভিযোগ ৩ বছর পর স্থগিত করা হয়। 

বোয়িংয়ের বিরুদ্ধে চলমান তদন্তের মধ্যেই একজন হুইসেলব্লোয়ার গত এপ্রিলে মার্কিন সিনেটে জানান, ৭৩৭ ম্যাক্স, ৭৮৭ ড্রিমলাইনার এবং ৭৭ মডেলের উড়োজাহাজগুলোতে মারাত্মক ত্রুটি রয়েছে।  

গত জানুয়ারিতে আলাস্কা এয়ারলাইনসের একটি ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজের দরজায় বিস্ফোরণের পর বোয়িং আবারও আলোচনার কেন্দ্রে আসে। এরই মধ্যে বোয়িংয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেভ কালাহউন ঘোষণা দিয়েছেন, ২০২৪ সালেই তিনি বোয়িং ছাড়ছেন। তবে তিনি বোয়িংয়ের বোর্ডে থাকছেন। 


মন্তব্য