এডিসি হারুনের পৈশাচিক হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানালো ঢাবির বঙ্গবন্ধু হল ছাত্রলীগ

ঢাবি
  © টিবিএম ফটো

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে শাহবাগ থানায় নিয়ে নির্যাতনের ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র সংগঠনটির ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা। তারা বলেছেন, ‘গতকাল শনিবার রাতে পুলিশের রমনা জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশিদের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা আনোয়ার হোসেন ও শরিফ আহমেদকে শাহবাগ থানায় তুলে নিয়ে অমানবিক ও নিষ্ঠুরভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। আমরা পুলিশের এই পৈশাচিক কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাই।’

আজ রোববার (১০ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে গতকালের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন বঙ্গবন্ধু হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান। গতকাল (৯ সেপ্টেম্বর) রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক ও ঢাবির শহীদুল্লাহ হলের সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমেদ মুনিম এবং কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফজলুল হক হলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন নাঈমকে শাহবাগ থানায় তুলে নিয়ে গিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দুই নেতাকে নির্যাতন করেন পুলিশের রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশিদ। ব্যক্তিগত বিষয়কে কেন্দ্র করে এমনটি করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, পুলিশের রমনা জোনের এডিসি হারুন অর রশিদের নেতৃত্বে শাহবাগ থানায় তুলে নিয়ে অমানবিক ও নিষ্ঠুরভাবে নির্যাতন করা হয়েছে আনোয়ার ও শরিফকে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগ পুলিশের এই পৈশাচিক কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাই। বাংলাদেশ পুলিশের মতো মহান পেশাকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগ সর্বদা সম্মান করে। তবে যারা এই মহান পেশাকে কলুষিত করতে চান, তারা দেশের শত্রু। একই সঙ্গে দ্রুত সময়ের মধ্যে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া না হলে রাজপথে নেমে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করতে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

জানা যায়, নারীঘটিত একটি ঘটনার জেরে শাহবাগ থানায় তাদের নির্যাতনের পর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার জেরে রাতে শাহবাগ থানার সামনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ভিড় করেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও পুলিশের কর্মকর্তারা থানায় গিয়ে মধ্যরাতে ঘটনা মীমাংসা করেন।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ