অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচনের তাগিদ যুক্তরাষ্ট্রের

নির্বাচন
  © ফাইল ছবি

নির্বাচন নিয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের বেসামরিক নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি উজরা জেয়া। বৈঠকে আগামী নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে আয়োজনের ওপর আবারও জোর দিয়েছে যুক্তরাষ্ট।

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) উজরা জেয়া ও মাসুদ বিন মোমেনের মধ্যে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বিষয়টি ব্যক্তিগত এক্স অ্যাকাউন্টে (সাবেক টুইটার) জানিয়েছেন উজরা জেয়া।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের ফাঁকে মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে হওয়া এ বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলেও ওই পোস্টে উল্লেখ করেন তিনি।

উজরা জেয়া লিখেছেন, ‘জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের ফাঁকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে আমার ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন এবং মতপ্রকাশের স্বাধীনতার গুরুত্ব নিয়ে আবার আলোচনার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছি।’

এক্স পোস্টে তিনি আরও জানান, রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি তাদের আশ্রয়দানকারী স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য মানবিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

এর আগে গত জুলাই মাসে চার দিনের সফরে বাংলাদেশে আসেন উজরা জেয়া। নতুন মার্কিন ভিসা নীতি ঘোষণার পর যুক্তরাষ্ট্রের কোনো জ্যেষ্ঠ প্রতিনিধি হিসেবে তিনিই বাংলাদেশ সফর করেন। ওই সফরকালে বাংলাদেশে শ্রম অধিকার, মানবাধিকার, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন, মানব পাচার ও রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা করেন মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের বেসামরিক নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারবিষয়ক এই আন্ডার সেক্রেটারি।

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে বাধা দিলে মার্কিন ভিসা দেওয়া হবে-এমন শর্ত জুড়ে গত মে মাসে বাংলাদেশের জন্য নতুন ভিসা নীতির ঘোষণা দেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। এর আগে গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ২০২১ সালের ১০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসে র‍্যাব এবং বিশেষায়িত ওই বাহিনীর সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দেশটি। ওই নিষেধাজ্ঞাকে ঘিরে দুই দেশের সম্পর্ক বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিল।


মন্তব্য