কারামুক্ত হয়ে বিএনপি নেতা গাড়িতে করে বাড়ি ফেরায় দলে ক্ষোভ

বিএনপি
বিএনপি নেতার গাড়িতে করে বাড়ি ফেরার দৃশ্য   © সংগৃহীত

কারাগার থেকে বের হয়ে নিজ দলের একাংশের ক্ষোভের মুখে পড়েছেন বিএনপি নেতা আবুল হোসেন খান। তিনি এই ক্ষোভের সম্মুখীন হয়েছেন হরতালে গাড়িতে করে বাড়ি ফেরায়। কারামুক্ত হয়ে ছাদখোলা গাড়িতে দাঁড়িয়ে নেতাকর্মীর ফুলেল শুভেচ্ছা নিয়েছেন বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবুল হোসেন খান। বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর চলমান ৪৮ ঘণ্টার হরতালের মধ্যেই রবিবার সন্ধ্যায় গাড়িতে চড়ে ফেরায় অনেকেই দলটির সমালোচনা করছেন। আবুল হোসেন নিজেই হরতাল ভঙ্গ করেছেন বলে অভিযোগ তাদের।

সোমবার (২০ নভেম্বর) আবুল হোসেন বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান। কারাফটকে তাঁকে অনুসারীরা ফুল দিয়ে বরণ করেন। পরে একটি সাদা গাড়িতে করে তিনি কারাফটক ত্যাগ করেন।

দলের টানা ৪৮ ঘণ্টা হরতাল কর্মসূচির মধ্যে স্থানীয় শীর্ষ নেতার গাড়িতে শোডাউন করা নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ জানিয়েছ অনেক নেতাকর্মী। এছাড়াও নানা মন্তব্য করেন নেতাকর্মীরা।

কবির খান নামে এক কর্মী লিখেন, ‘নির্বাচনের নমিনেশন নিয়ে হাজির আবুল ভাই।’

নুরুল ইসলাম নামে এক বিএনপি কর্মী লিখেছেন, ‘চলমান হরতালের মধ্যে একজন নেতার এভাবে গাড়িতে করে শোডাউন দেয়া উচিত হয়নি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবুল হোসেন জানান, তিনি ১ নভেম্বর অবরোধ চলাকালে গ্রেপ্তার হন। তাঁর ধারণা ছিল পুলিশ আবার তাঁকে গ্রেপ্তার করবে। সে কারণে গাড়িতে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। তাঁর মুক্তির খবরে কারাগারের ফটকে অসংখ্য নেতাকর্মী জড়ো হয়েছিলেন। তিনি হাত তুলে হ্যালো করেছেন মাত্র।

বরিশাল সদর উপজেলা বিএনপির ১ নম্বর সদস্য কেন্দ্রীয় নেতা আবু নাসের রহমাতুল্লাহ বলেন, হরতালের সময় গাড়িতে শোডাউন দেয়া দুঃখজনক। এখনতো ফুলের মালা নেয়ারও সময় নয়। আবুল হোসেনের কারাফটক থেকে হেঁটে যাওয়া উচিত ছিল।

বরিশাল সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক এনায়েত হোসেন বাচ্চু এবং সদস্য সচিব রফিকুল ইসলামও আন্দোলনের মাঠে নেই বলে অভিযোগ করেন তিনি।

দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আবুল কালাম শাহিন জানান, তিনি আবুল হোসেনকে জেলগেট থেকে বেরিয়ে সাদা একটি গাড়িতে চড়তে দেখেছেন। জেলগেটে কিছু কর্মী গিয়েছিল। তবে সেখানে শোডাউন কিংবা ফুল দিয়ে বরণ করা হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে টানা ১৯ দিন পর স্থানীয় শীর্ষস্থানীয় নেতাদের অংশগ্রহণে সোমবার বরিশাল নগরীতে হরতালের পক্ষে বিক্ষোভ হয়েছে। দুপুরে নগরের বটতলা এলাকায় মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের একটি ঝটিকা মিছিলে নেতৃত্ব দেন মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মীর জাহিদুল ইসলাম। এ ছাড়া নগরের কয়েকটি স্থানে হরতালের সমর্থনে ঝটিকা মিছিল হয়েছে।

গত ১ নভেম্বর সকালে অবরোধের সমর্থনে বিএনপি নেতারা বিক্ষোভের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। এর আগে পুলিশ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস আক্তার জাহান শিরিন, মহানগর আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান ফারুক, দক্ষিণ জেলার আহ্বায়ক আবুল হোসেন খানসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করে। এতে অন্য নেতারা গা ঢাকা দেন।

এদিকে বিএনপির ডাকা ৪৮ ঘণ্টার হরতাল শেষ হলে একদিন বিরতি দিয়ে আবারও ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ ডেকেছে। আগামী বুধবার থেকে দেশব্যাপী চলবে এই অবরোধ। 


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ