বাংলাদেশে পুরুষের চেয়ে নারীরা বেশি একাকিত্বে ভুগেন: জরিপ

একাকিত্ব
  © প্রতীকী ছবি

সামাজিকভাবে একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষ। তবে অনেকেই বিভিন্ন কারণে একাকিত্বে ভুগে থাকেন। বিশ্বের কোন দেশের কত শতাংশ মানুষ একাকিত্বে ভুগেন এটা নিয়ে একটি গবেষণা প্রকাশ করেছে মেটা-গ্যালাপে। বিশ্বের অর্ধেক মানুষ মনে করেন তারা একা নন। গত বছরের শেষদিকে প্রকাশিত মেটা–গ্যালাপের একটি গবেষণা থেকে এসব তথ্য জানা যায়। মেটা–গ্যালাপের মতে, বাংলাদেশে পুরুষের চেয়ে নারীরা বেশি একাকীত্বে ভুগেন। বিশ্বের ১৪২টি দেশে জরিপ চালিয়ে এ তথ্য জানানো হয়।  

গ্যালাপের ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, বাংলাদেশের ৪০ শতাংশ মানুষ মনে করেন, তারা একা নন। কিছুটা একাকীত্বে ভুগেন ২০ শতাংশ। আর এর চেয়ে বেশি একাকীত্বে ভুগেন ৩৯ শতাংশ। নারী ও পুরুষদের মধ্যে তুলনামূলক হিসেবও প্রকাশ করেছে মেটা–গ্যালাপ।

জরিপে উঠে আসে, একাকীত্বে ভুগেন বাংলাদেশের ৩৭ শতাংশ পুরুষ। কিছুটা একাকী মনে হয় ১৯ শতাংশ পুরুষের। আর ৪২ শতাংশ বাংলাদেশি পুরুষ মনে করেন, তারা একা নন। কারও না কারও সঙ্গ পান। 

নারীদের ক্ষেত্রে এই চিত্রটা একটু অন্যরকম। বাংলাদেশের ৪০ শতাংশ নারী একাকীত্বে ভুগেন বলে মেটা–গ্যালাপের জরিপে জানানো হয়েছে। আর কিছুটা একাকীত্বে থাকেন ২০ শতাংশ। এ ছাড়া ৩৮ শতাংশ বাংলাদেশি নারী মনে করেন, তারা একা নন।

মেটা–গ্যালাপ বলছে, বিশ্বের প্রায় ৩২০ কোটি মানুষ নিজেদের সামাজিকভাবে যুক্ত বলে মনে করেন। এটি জরিপ করা ব্যক্তিদের মধ্যে ৭২ শতাংশ। আর নিজেদের একাকী মনে করেন ১৪২ দেশের ৬ শতাংশ মানুষ।

এ গবেষণার ব্যাপারে মেটার জ্যেষ্ঠ গবেষক আনিয়া দ্রাবকিন বলেন, ‘আমাদের এই প্ল্যাটফর্মের কাজ হচ্ছে মানুষদের মধ্যে সম্পর্ক ঠিক রাখা। তাদের সব ধরনের সহায়তা দেওয়া। এছাড়া বিশ্বের সব সম্প্রদায়কে এক ছাতার নিচে আনাই আমাদের লক্ষ্য।’

বিশ্বের ৭৩ শতাংশ পুরুষ নিজেদের সামাজিকভাবে যুক্ত বলে মনে করেন। আর নারীদের ক্ষেত্রে এই পরিমাণ ৭২ শতাংশ। মঙ্গোলিয়ায় এই সংখ্যা শতকে পুরুষ ৯৬ শতাংশ এবং নারী ৯৪ শতাংশ।-ইন্ডিপেন্ডেন্ট


মন্তব্য