সাইফউদ্দিনকে ‘দুর্ভাগা’ বললেন নান্নু

সাইফউদ্দিন
  © ফাইল ছবি

আজ ঘোষিত বিশ্বকাপের ১৫ জনের দল বা দুজনের স্ট্যান্ডবাই তালিকায়ও নেই সাইফউদ্দিন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজে ৪ ম্যাচ খেলে ৮ উইকেট নিলেও তাকে বিশ্বকাপের জন্য বিবেচনা করা হয়নি। জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক গাজী আশরাফ হোসেন লিপুই আজ সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন এই খবর। সাইফউদ্দিনের বদলে তানজিম হাসান সাকিবকে বেছে নিয়েছেন তারা।

মূলত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে শেষ দুই ওয়ানডেতে বেদম মার খাওয়াতেই কপাল পুড়েছে সাইফউদ্দিনের। সিরিজে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হলেও শেষ দুই টি-টোয়েন্টিতে এই পেসার খরচ করেন ৪২ ও ৫৫ রান। এর মধ্যে শেষ টি-টোয়েন্টিতে তো জিম্বাবুয়ের কাছে হেরেই যায় বাংলাদেশ।

বিসিবির প্রধান নির্বাচক দু’জনের মধ্যে একজনকে বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে তানজিমের একাগ্রতা ও সাইফউদ্দিনের ইয়র্কার দিতে না পারার কথা উল্লেখ করেছেন। দল ঘোষণার পর প্রশ্নের জবাবে বিসিবির প্রধান নির্বাচক লিপু বলেন, ‘তানজিম সাকিব শ্রীলঙ্কার সিরিজেও দলের সঙ্গে ছিল। তার একাত্মতা, সেরাটা মাঠে দেওয়ার প্রচেষ্টার বিষয়টি তাকে এগিয়ে রেখেছে। আমরা সাইফউদ্দিনকে যে কারণে দেখতে মুখিয়ে ছিলাম, তা হলো ওর ব্যাটিং। কিন্তু সিরিজে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পায়নি। আরেকটি হলো- ডেথ ওভারে তার ইয়র্কার করার এবিলিটি ছিল। সেটা অনেক কম দেখা গেছে।’

প্রধান নির্বাচক লিপু জানিয়েছেন, ঘরোয়া ক্রিকেটে তার স্লগে বোলিং করার, ইয়র্কার দেওয়ার যে দক্ষতা তারা দেখেছিলেন, আন্তর্জাতিক ম্যাচে এসে অনেক তারতম্য দেখেছেন তারা। বিশ্বকাপের জন্য আইসিসির কাছে যে প্রাথমিক দল পাঠানো হয়েছিল, সেখানেও সাইফউদ্দিনের নাম ছিল বলে দাবি করেছেন সাবেক এই অধিনায়ক।

সাইফউদ্দিনকে কেন বাদ দেওয়া হয়েছে, সেই ব্যাখায় কথা বলেছেন বিসিবির সাবেক নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। সাইফউদ্দিনের না থাকাকে দুর্ভাগ্য আখ্যা দিয়ে সংবাদমাধ্যমে নান্নু বলেন, ‘দেখেন জাতীয় দলের ৭-৮ জন পেসার আছে আমাদের, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাদেরকে নিয়ে নির্বাচক কমিটি চিন্তা করেছে। সেই হিসেবে সাইফউদ্দিন কিন্তু ৮ মাস পর ক্রিকেটে ফিরেছে। এটা বড় একটা কনসার্ন ছিল। জিম্বাবুয়ের সাথে তো অলমোস্ট ৪টি ম্যাচ খেলেছে। টিম ম্যানেজম্যান্টের কাছে হয়তো ওর ফিটনেস বা স্কিলে কিছু ঘাটতি লেগেছে। যার কারণে হয়তো সে দলে জায়গা পায়নি। এটা ওর জন্য দুর্ভাগ্য। যাকে সুযোগ দিয়েছে- তানজিম সাকিব , সেও কিন্তু তেইশের বিশ্বকাপ থেকে দলের সাথেই আছে। সেই হিসেবে ওর এক্সপেরিয়েন্স যথেষ্ট ভালো।’


মন্তব্য