শাস্তি পেলেন রশিদ খান

রশিদ খান
  © সংগৃহীত

প্রথমবার বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের টিকিট পেয়ে বিশ্বব্যাপী আলোচনায় আসে আফগানিস্তান। এই সাফল্যের অন্যতম নায়ক রশিদ খান। মাঠে নিজের পারফরম্যান্সের পাশাপাশি দলকে নেতৃত্বও দিয়েছেন দুর্দান্ত। তবে সেমিফাইনালে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই আইসিসি থেকে শাস্তি পেয়েছিলেন তিনি।

এরপরই দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে বাজেভাবে হেরেছে তার দল। আজ বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আগে ব্যাট করে মাত্র ৫৬ রান করে তারা। এতেই ফাইনাল খেলার স্বপ্নভঙ্গ হয় তাদের। আফগানদের ৯ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

গতকাল (বুধবার) এক বিবৃতিতে রশিদ খানের শাস্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইসিসি)।

জানা গেছে, বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে ইনিংসের শেষ ওভারে দুই রান নেওয়ার চেষ্টায় প্রায় স্ট্রাইক প্রান্তে দৌড়ে গিয়েছিলেন রশিদ। তবে সঙ্গী করিম জানাত এক রানের বেশি নিতে চাননি। সতীর্থের অসম্মতি দেখে রশিদ মেজাজ হারিয়ে ব্যাট ছুড়ে মারেন আফগান অধিনায়ক।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রশিদের আচরণে প্লেয়ারদের কোড অব কন্ডাক্টের ২.৯ ধারা লঙ্ঘন হয়েছে। যেখানে বিপজ্জনকভাবে কোনো ক্রিকেটারের দিকে বা কাছাকাছি জায়গায় বল বা অন্য কোনো সরঞ্জাম ছুড়ে মারার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

ম্যাচ রেফারির সাজা মেনে নেওয়ায় কোনো প্রকার আনুষ্ঠানিক শুনানির দরকার হয়নি। ২৪ মাসের মধ্যে প্রথম ডিমেরিট পয়েন্ট পেলেন রশিদ।

ম্যাচটিতে আগে ব্যাট করে ১১৫ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় আফগানিস্তান। লো-স্কোরিং ম্যাচটিতে ক্যামিও ইনিংস খেলেছেন রশিদ। ১০ বলে তিনি অপরাজিত ১৯ রান করেন।

এরপর বল হাতে আরও দুর্দান্ত আফগান অধিনায়ক। মাত্র ২৩ রান খরচায় ৪ উইকেট শিকার করেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা এই লেগ স্পিনার।


মন্তব্য