প্রথমবারের মতো শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করা সেই ব্যক্তি মারা গেছেন

প্রতিস্থাপন
  © সংগৃহীত

গত মার্চে প্রথমবারের মতো সফলভাবে মানুষের শরীরে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল। স্লেম্যান নামের ৬২ বছর বয়সী এক ব্যক্তির শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয় শূকরের কিডনি। এর দুই মাস যেতে না যেতেই তিনি মারা গেলেন। তবে, এই কিডনির কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে কিনা—তা নিশ্চিত করেননি চিকিৎসকেরা। 

গত মার্চে আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালে দীর্ঘ চার ঘণ্টা অপারেশন চালিয়ে ৬২ বছর বয়সী রিক স্লেম্যানের শরীরের কিডনিটি প্রতিস্থাপন করেন চিকিৎসকেরা। তাঁরা তখন বলেন, অন্তত দুই বছর এই কিডনি কার্যক্রম চালাতে পারবে বলে মনে হচ্ছে। তবে, শনিবার রিক স্লেম্যান মারা যান।

এ নিয়ে এক বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করেছে আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান বলছে, এর আগে শুকরের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল দুজনের শরীরে। তাদের একজনও এখন আর বেঁচে নেই। 

হাসপাতালের কাছে দেওয়া এক বিবৃতিতে স্লেম্যান বলেছিলেন, তিনি বহু বছর ধরে ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগতে ভুগতে এক সময় কিডনি বিকল হয়ে যায়। এরপর ২০১৮ সালে তিনি একজন দাতার কাছ থেকে কিডনি নিয়েছিলেন। কিন্তু এটি প্রতিস্থাপনের পাঁচ বছরের মধ্যেই নানা জটিলতা দেখা দেয়। পরে গত বছর থেকে আবার ডায়ালাইসিস শুরু করেন।

দীর্ঘ ১১ বছর ধরে আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালের ট্রান্সপ্লান্ট প্রোগ্রামে রোগী হিসেবে ছিলেন স্লেম্যান।


মন্তব্য