ইয়ট থেকে ছোঁড়া আতশবাজিতে গ্রিসের দ্বীপে ভয়াবহ দাবানল

গ্রিস
  © সংগৃহীত

গত শুক্রবার গ্রিসের হাইড্রা দ্বীপের একটি বনে ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়ে। একটি ইয়ট থেকে ছোড়া আতশবাজির কারণেই গ্রিসের হাইড্রা দ্বীপে ভয়াবহ দাবানলের সৃষ্টি হয়েছে বলে ধারণা করছেন কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। এছাড়া বিবিসির প্রতিবেদনেও একই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, গত শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই দাবানলে দেশটির হাইড্রা দ্বীপের একমাত্র পাইনবনটি ধ্বংস হয়ে গেছে। বর্তমানে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও দমকল কর্মীদের জন্য দাবানলটি বড় ধরনের একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছিল। কেননা ওই বনের দিকে যাওয়ার মতো কোনো সড়ক ছিল না। এর ফলে সাগরের মধ্য দিয়ে দমকল কর্মীদের সেখানে যেতে হয় এবং পানি ফেলার জন্য হেলিকপ্টার ব্যবহার করতে হয়।

গ্রিসের রাজধানী এথেন্সের দক্ষিণপশ্চিমে সারোনিক উপসাগরের দ্বীপ হাইড্রা বিদেশি পর্যটক এবং ইয়ট ভ্রমণকারীদের অন্যতম প্রিয় গন্তব্য।

হাইড্রার দমকল বাহিনী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জানায়, একটি ইয়ট থেকে ছোড়া আতশবাজির কারণে এই দাবানলের সূত্রপাত হয়। দাবানলটি দ্বীপের দুর্গম এলাকায় অবস্থিত একমাত্র পাইনবনটিকে জ্বালিয়ে দিয়েছে।

গ্রিসের কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানায়, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহভাজন ১৩ গ্রিক নাগরিককে এথেন্স উপকূলের ইয়ট জেটি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রোববার তাদের আদালতে হাজির করা হবে।

প্রসঙ্গত, ভূমধ্যসাগরীয় দেশ গ্রিসে দাবানল নিয়মিত ঘটনা। চলতি বছরের প্রথম তাপদাহের মধ্যেই দেশটির বেশ কয়েকটি এলাকায় দাবানল শুরু হয়। এতে পেলোপনিস উপদ্বীপের ইলিয়া অঞ্চলে শুক্রবার ৫৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি


মন্তব্য