ইসরায়েলে ১০০ রকেট হামলা চালালো হিজবুল্লাহ

হিজবুল্লাহ
  © সংগৃহীত

প্রায় নয় মাস ধরে ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজায় আগ্রাসন চালিয়ে যাচ্ছে দখলদার ইসরায়েল। তাদের বর্বর হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৭ হাজার ৯৫৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। যাদের অধিকাংশই নারী ও শিশু।

দখলদার ইসরাইলের এই বর্বরতার বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই প্রতিবাদ করে আসছে লেবাননের ইরান সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল। এর প্রতিশোধ নিতে ইসরায়েলও লেবাননে পাল্টা আক্রমণ চালাচ্ছে। এমনই এক হামলায় হিজবুল্লাহর শীর্ষ এক কমান্ডার নিহত হন। এর প্রতিবাদে ইসরাইলকে লক্ষ্য করে ১০০টি ‘কাতিউশা’ রকেট হামলা চালিয়েছে সংগঠনটি।

বুধবার (০৩ জুলাই) ইসরাইলের মারজায়ুনের দক্ষিণ লেবানিজ এলাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় এই হামলা চালায় হিজবুল্লাহ। খবর আলজাজিরার।

এক বিবৃতিতে হিজবুল্লাহ জানিয়েছে, জ্যেষ্ঠ কমান্ডারকে হত্যা করায় ইসরাইলের দখলকৃত গোলান হাইটসের দুটি স্থানে এসব রকেট ছোড়া হয়েছে। তারা বলেছে, হিজবুল্লাহর যোদ্ধারা (ইসরাইলি) গোলান ডিভিশন হেডকোয়ার্টারের নাফাহ ব্যারাক এবং আকাশ ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষার হেডকোয়ার্টারের কেইলা ব্যারাকে হামলা চালিয়েছে।

তারা আরও বলেছে, ইসরাইলি শত্রুরা লেবাবনের উপকূলীয় শহর তায়ারে যে হামলা ও হত্যা চালিছে সেটির জবাবের অংশ এই হামলা। দখলদার ইসরাইলের হামলায় হিজবুল্লাহর অন্যতম জ্যেষ্ঠ কমান্ডার নিমার নাসের নিহত হন। তিনি ‘হজ আবু নিমা’ নামেও পরিচিত। ইসরাইলি হামলায় তার দেহরক্ষীও প্রাণ হারান।

প্রসঙ্গত, গত বছরের অক্টোবরে ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ও ইসরাইলের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর এতে যোগ দেয় লেবানের শক্তিশালী গোষ্ঠী হিজবুল্লাহও। যুদ্ধের শুরুতে হিজবুল্লাহর হামলার তীব্রতা কম থাকলেও গত কয়েক মাসে এটি বৃদ্ধি পেয়েছে। হামলা বাড়িয়ে দেওয়ায় হিজবুল্লাহর সঙ্গে পূর্ণমাত্রার যুদ্ধের হুমকি দিয়েছে ইসরাইল।


মন্তব্য