২২ বছর পর নিখোঁজ পর্বতারোহীর অক্ষত মরদেহ উদ্ধার

পর্বতারোহী
  © সংগৃৃহীত

কনকনে ঠাণ্ডায় ছেয়ে আছে চারপাশ। সাদা বরফে আবৃত গোটা একটি এলাকা। এর মাঝেই উঁকি দিচ্ছে পর্বতমালা। গলতে থাকা বরফের মধ্যেই দেখা গেল একটি লাশ। এক বা দুই নয়, ২২ বছর পুরোনো সেই লাশটি এক মার্কিন পর্বতারোহীর। তার নাম উইলিয়াম স্টাম্পফল। 

২০০২ সালে বরফে আবৃত পেরুর হুয়াসকারান পর্বতে আরোহণ করতে গিয়ে নিখোঁজ হন তিনি। এরপর কেটে গেছে দুই দশকের বেশি সময়। অবশেষে তার লাশের সন্ধান পাওয়া গেছে। এএফপি। 

সোমবার পেরুর পুলিশ বলেছে, স্টাম্পফল তুষারের নিচে চাপা পড়েছিলেন। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বরফ গলে যাওয়ায় এ পর্বতারোহীর মৃতদেহ বাইরে বেরিয়ে এসেছে। ২০০২ সালের জুনে হুয়াসকারান পর্বতে তুষারঝড়ের কবলে পড়ে স্টাম্পফলসহ পর্বতারোহীদের একটি দল। 

পর্বতটির উচ্চতা ৬ হাজার ৭০০ মিটারের বেশি (২২ হাজার ফুট)। পর্বতারোহীদের খোঁজে অভিযানও চালানো হয়েছিল তখন। তবে তাতে কাজ হয়নি। নিখোঁজ হওয়ার সময় স্টাম্পফলের বয়স ছিল ৫৯ বছর। 

পেরুর পুলিশ বলেছে, আন্দেসের কর্দিলেরা ব্লাঙ্কা রেঞ্জে বরফ গলার কারণে স্টাম্পফলের দেহাবশেষ দৃশ্যমান হয়েছে। পুলিশের দেওয়া ছবিতে দেখা গেছে, ঠান্ডার মধ্যে থাকার কারণে স্টাম্পফলের লাশ, তার পরনের পোশাক, সাজসজ্জা, পায়ের জুতা বেশ ভালোভাবেই সুরক্ষিত আছে। স্টাম্পফলের পাসপোর্ট তার সঙ্গেই পাওয়া গেছে। এ কারণে সহজেই তার পরিচয় শনাক্ত করতে পেরেছে পুলিশ। পেরুর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে হুয়াসকারান ও কাশানের মতো বরফাবৃত পর্বতগুলোর অবস্থান। এ কারণে বিশ্বের পর্বতারোহীদের কাছে এটি বেশ আকর্ষণীয় জায়গা। 

সেখানে এক ইসরাইলি পর্বতারোহী নিখোঁজ হওয়ার এক মাস পর গত মে মাসে তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গত মাসে সেখান থেকে ইতালির নাগরিক এক পর্বতারোহীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি আন্দিয়ানের আরেকটি পর্বতে ওঠার চেষ্টা করার সময় পড়ে গিয়েছিলেন।


মন্তব্য