স্বপ্নের ফাইনালে ভারত-দ.আফ্রিকা

বিশ্বকাপে
  © ফাইল ছবি

স্বপ্নের ফাইনাল বলাই যায়। আগামীকাল বারবাডোজে এবারের টি ২০ বিশ্বকাপের শিরোপাযুদ্ধে মুখোমুখি হবে টুর্নামেন্টের দুই অপরাজিত দল ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। শেষ চারে দারুণ রোমাঞ্চের হাতছানি থাকলেও বৃহস্পতিবার দুটি সেমিফাইনালই হয়েছে একপেশে। সকালে ত্রিনিদাদে আফগানিস্তানকে মাত্র ৫৬ রানে অলআউট করে নয় উইকেটের বিশাল জয়ে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম বিশ্বকাপ ফাইনাল নিশ্চিত করে দক্ষিণ আফ্রিকা। রাতে গায়ানায় বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় সেমিফাইনালে গতবারের চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে ৬৮ রানে হারায় ভারত। 

বৃষ্টির বাগড়ায় ওভার কাটা না গেলেও ম্যাচ শেষ হতে লেগে যায় বাংলাদেশ সময় রাত ২টা। ২০২২ আসরের সেমিফাইনালে ১৬৯ রান করেও ইংল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটে হেরেছিল ভারত। এবার ইংলিশদের শিরোপা ধরে রাখার স্বপ্ন গুঁড়িয়ে অ্যাডিলেডের বদলা গায়ানায় নিলেন রোহিত শর্মারা। 

প্রোভিডেন্স স্টেডিয়ামের মন্থর উইকেটে অধিনায়ক রোহিত শর্মার ৩৯ বলে ৫৭ ও সূর্যকুমার যাদবের ৩৬ বলে ৪৭ রানের দারুণ দুটি ইনিংসে ভারত পেয়ে যায় ১৭১ রানের পুঁজি। ইংল্যান্ডের জন্য সেটিকেই হিমালয় বানিয়ে ফেলেন ভারতের বোলাররা। ১৫ বলে ২৩ রানের ইনিংসে ঝড় তোলার আভাস দেওয়া ইংল্যান্ড অধিনায়ক জস বাটলারকে চতুর্থ ওভারে ফিরিয়ে প্রথম আঘাত হানেন অক্ষর প্যাটেল। পরের ওভারে আরেক ওপেনার ফিলিপ সল্টকে তুলে নেন পেসার জাসপ্রিত বুমরা। এরপর দুই স্পিনার অক্ষর ও কুলদীপ যাদবের যুগল তাণ্ডবে ৭২ রানে সাত উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় ইংল্যান্ড। শেষ পর্যন্ত ১৬.৪ ওভারে ১০৩ রানে অলআউট হয় তারা। হ্যারি ব্রুক ১৯ বলে ২৫ ও শেষদিকে জফরা আর্চার ১৫ বলে করেন ২১ রান। অক্ষর ও কুলদীপ তিনটি করে এবং বুমরা নেন দুই উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে সাত উইকেটে ১৭১ রান করে ভারত। বৃষ্টির কারণে সোয়া এক ঘণ্টা দেরিতে শুরু হওয়া ম্যাচে পাওয়ারপ্লেতে ৪৬ রান তুলতেই দুই উইকেট হারায় টি ২০-র এক নম্বর দলটি। পুরো আসরে নিজেকে হারিয়ে খোঁজা বিরাট কোহলি এবারও এক ছক্কায় নয় বলে নয় রান করে রিস টপলির বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন। ষষ্ঠ ওভারে ঋষভ পন্তকে ফেরান স্যাম কারেন। 

গায়ানার মন্থর ও অসমান বাউন্সের উইকেটে শুরুর ধাক্কা সামলে শেষ পর্যন্ত ভারতকে লড়াকু পুঁজি এনে দেন অধিনায়ক রোহিত ও সূর্যকুমার। তৃতীয় উইকেটে দুজন গড়েন ৫০ বলে ৭৩ রানের জুটি। ভারতের ইনিংসে আট ওভার শেষে নামা বৃষ্টিতে খেলা দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকলেও ছন্দ হারাননি রোহিত। ৩৬ বলে ফিফটি ছোঁয়া রোহিত ছয় চার ও দুই ছক্কায় ৩৯ বলে করেন ৫৭ রান। টি ২০তে এটি তার ৩২তম ফিফটি। ১৪তম ওভারে দারুণ এক ডেলিভারিতে রোহিত-ঝড় থামান স্পিনার আদিল রশিদ। এরপর ৩৬ বলে ৪৭ রান করা সূর্যকুমারকে তুলে নেন পেসার জফরা আর্চার। দুই সেট ব্যাটারের বিদায়ের পর হার্দিক পান্ডিয়া (১৩ বলে ২৩) ও রবীন্দ্র জাদেজার (নয় বলে ১৭*) ব্যাটে ১৭১ পর্যন্ত যেতে পারে ভারত। ১৮তম ওভারে পরপর দুই বলে হার্দিক ও শিবম দুবেকে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগানো ক্রিস জর্ডান ৩৭ রানে তিন উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সফলতম বোলার। 


মন্তব্য