বসিক নির্বাচনে প্রতীক পেলেন ১৬৫ প্রার্থী

জাতীয়
বসিক নির্বাচনে প্রতীক পেলেন ১৬৫ প্রার্থী  © সংগৃৃহীত

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়রসহ ১৬৫ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (২৬ মে) রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেওয়া হয়।

বরিশাল সিটি করপোরেশনের এবারের নির্বাচনে সাত মেয়র প্রার্থী ও ১১৬ জন সাধারণ এবং ৪২ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন।

মেয়র পদে ‘ঘড়ি’ প্রতীক পেয়েছেন বরিশাল সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মরহুম আহসান হাবিব কামালের ছেলে কামরুল আহসান রূপণ। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন। প্রতীক পাওয়ার পর কামরুল আহসান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার বাবা প্রয়াত আহসান হাবিব কামাল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেছেন। তার সঙ্গে মিলিয়ে আমি প্রতীক হিসেবে টেবিল ঘড়ি চেয়েছিলাম। আমি নির্বাচনে জয়ের আশা করছি। 

অপর স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর মো. আলী হোসেন হাওলাদার পেয়েছেন ‘হরিণ’ ও মো. আসাদুজ্জামান পেয়েছে ‘হাতি’ প্রতীক। তারা দুই জনই প্রতীক পেয়ে নিজেদের সন্তষ্টির কথা জানিয়েছেন।

পড়ুন>>> সুষ্ঠু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রের বিজয় হয়েছে: ওবায়দুল কাদের

এদিকে, আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ (খোকন সেরনিয়াবাত) পেয়েছেন নৌকা প্রতীক, জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী ইকবাল হোসেন (তাপস) পেয়েছেন লাঙ্গল, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত প্রার্থী মুফতী সৈয়দ মো. ফয়জুল করিম পেয়েছেন হাতপাখা।  জাকের পার্টির মিজানুর রহমান বাচ্চু নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন গোলাপ ফুল প্রতীক নিয়ে।

প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর সাংবাদিকদের মাধ্যমে নগরবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল খায়ের খোকন সেরনিয়াবাত। তিনি বলেন, আমি নির্বাচিত হলে বরিশাল শহরে ব্যাপক উন্নয়ন করবো। ভোটারদের নৌকায় ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শাক্তিশালী করার আহ্বান জানান তিনি।

জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস বলেন, গাজীপুর সিটি নির্বাচন দেখে ভোট নিয়ে জনগণের আগ্রহ বেড়েছে। তাই লাঙ্গল প্রতীকে ভোট দিয়ে বরিশালকে একটি উৎপাদনমুখী এবং আইটি নগরী গড়ে তুলতে নগরবাসী চেষ্টা করবেন বলে তার বিশ্বাস। 

পড়ুন>>> যুক্তরাষ্ট্রের ভিসানীতি বাংলাদেশের জনগণের দাবির প্রতিধ্বনি: মির্জা ফখরুল

এদিকে, প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই গণসংযোগ শুরু করেছেন জাকের পার্টির প্রার্থী মিজানুর রহমান বাচ্চু। তিনি বরিশাল নগরীর উন্নয়নে গোলাপ ফুল প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেন। 

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম পক্ষে দলীয় নেতাকর্মীরা প্রতীক গ্রহণ করেন।

বরিশাল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওয়াহিদুজ্জামান মুন্সি বলেন, এই সিটি প্রতিটি থানা এলাকায় একটি করে নির্বাচনী ক্যাম্প স্থাপন করতে পারবেন মেয়র প্রার্থীরা। দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তারা মাইকিং করতে পারবেন। নির্বাচন বিধি লংঙ্ঘন হলে অভিযুক্ত প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিলসহ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, আগামী ১২ জুন ইভিএম মেশিনে ভোট গ্রহণ হবে বরিশাল সিটি করপোরেশনে। এই নগরীতে মোট ভোটার ২ লাখ ৭৬ হাজার ২৯৮ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৩৮ হাজার ৮০৯ জন এবং পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৭ হাজার ৪৮৯ জন। ১২ জুন ১২৬ টি কেন্দ্রের ৮৯৪টি বুথে ভোট গ্রহণ হবে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বলেন, ভোট গ্রহণ প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে ৫০ জন অংশ নিয়েছিলেন। প্রথম পর্যায়ে ৮৫ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিল জেলা নির্বাচন কমিশন। সব মিলিয়ে ১৩৬ জন প্রশিক্ষণার্থীকে ১২ জুনের নির্বাচনে প্রত্যেকটি কেন্দ্রে ইভিএম সুরক্ষায় ও পোলিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হবে। 


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ