৫ রেলপথকে ডাবল লাইনে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত  

রেলপথ
  © সংগৃৃহীত

সরকার প্রস্তাবিত ২০২৪- ২০২৫ অর্থবছরের বাজেটে ৫টি রেলপথকে ডাবল লাইনে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়েছে। জয়দেবপুর- ঈশ্বরদী, বগুড়া- সিরাজগঞ্জ, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ডুয়েলগেজ, খুলনা-দর্শনা জংশন ডাবল লাইন নির্মাণ করা হবে।

একইসাথে নির্মাণাধীন ঢাকা-টঙ্গী সেকশনের ৩য় ও ৪র্থ ডুয়েলগেজ লাইন এবং টঙ্গী-জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণ কাজের এগিয়ে নেওয়া হবে।  

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) জাতীয় সংসদে বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপনকালে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এ তথ্য জানিয়েছেন। এরমধ্যে চট্টগ্রাম থেকে দোহাজারী পর্যন্ত মিটারগেজ রেলপথকে ডুয়েলগেজ এবং চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত ডাবল লাইন নির্মাণ করা হবে।  

অন্যদিকে স্থগিত থাকা রামু হতে মায়ানমারের নিকটে গুনধুম পর্যন্ত সিঙ্গেল লাইন ডুয়েলগেজ ট্র্যাক নির্মাণ করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। একইসাথে ২০০ টি ব্রডগেজ গেজ যাত্রীবাহী কোচ সংগ্রহ এবং ২০টি মিটারগেজ লোংকামোটিভ এবং ১৫০টি মিটারগেজ যাত্রীবাহী ক্যারেজ সংগ্রহ করা হবে।

একইসঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের ঈশ্বরদী- পাবতীপুর সেকশনের স্টেশনসমূহের সিগন্যালিং ও ইন্টারলকিং ব্যাবস্থার প্রতিস্থাপন ও আধুনিকীকরণ এবং
ধীরাশ্রম আইসিডি নির্মাণের লক্ষ্যে জমি অধিগ্রহণসহ পুবাইল- ধীরাশ্রম রেল লিংক নির্মাণের লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।  

সরকারের চলমান পদ্মা রেল সংযোগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু নির্মাণ, মধুখালী হতে কামার খালী হয়ে মাগুরা শহর পর্যন্ত ব্রডগেজ রেলপথ নির্মাণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী ।  

দেশের ১৮তম অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবারই প্রথম বাজেট পেশ করেছেন। এটি দেশের ৫৩তম বাজেট।

৫ রেলপথকে ডাবল লাইনে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত  

সরকার প্রস্তাবিত ২০২৪- ২০২৫ অর্থবছরের বাজেটে ৫টি রেলপথকে ডাবল লাইনে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়েছে। জয়দেবপুর- ঈশ্বরদী, বগুড়া- সিরাজগঞ্জ, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ডুয়েলগেজ, খুলনা-দর্শনা জংশন ডাবল লাইন নির্মাণ করা হবে।

একইসাথে নির্মাণাধীন ঢাকা-টঙ্গী সেকশনের ৩য় ও ৪র্থ ডুয়েলগেজ লাইন এবং টঙ্গী-জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণ কাজের এগিয়ে নেওয়া হবে।  

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) জাতীয় সংসদে বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপনকালে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এ তথ্য জানিয়েছেন। এরমধ্যে চট্টগ্রাম থেকে দোহাজারী পর্যন্ত মিটারগেজ রেলপথকে ডুয়েলগেজ এবং চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত ডাবল লাইন নির্মাণ করা হবে।  

অন্যদিকে স্থগিত থাকা রামু হতে মায়ানমারের নিকটে গুনধুম পর্যন্ত সিঙ্গেল লাইন ডুয়েলগেজ ট্র্যাক নির্মাণ করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। একইসাথে ২০০ টি ব্রডগেজ গেজ যাত্রীবাহী কোচ সংগ্রহ এবং ২০টি মিটারগেজ লোংকামোটিভ এবং ১৫০টি মিটারগেজ যাত্রীবাহী ক্যারেজ সংগ্রহ করা হবে।

একইসঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের ঈশ্বরদী- পাবতীপুর সেকশনের স্টেশনসমূহের সিগন্যালিং ও ইন্টারলকিং ব্যাবস্থার প্রতিস্থাপন ও আধুনিকীকরণ এবং
ধীরাশ্রম আইসিডি নির্মাণের লক্ষ্যে জমি অধিগ্রহণসহ পুবাইল- ধীরাশ্রম রেল লিংক নির্মাণের লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।  

সরকারের চলমান পদ্মা রেল সংযোগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু নির্মাণ, মধুখালী হতে কামার খালী হয়ে মাগুরা শহর পর্যন্ত ব্রডগেজ রেলপথ নির্মাণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী ।  

দেশের ১৮তম অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবারই প্রথম বাজেট পেশ করেছেন। এটি দেশের ৫৩তম বাজেট।


মন্তব্য